image_267857.komonw1
ঢাকায় সফররত কমনওয়েলথের মহাসচিব কমলেশ শর্মা কমনওয়েলথ এবং সংস্থার বিভিন্ন সংগঠনে বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার প্রশংসা করেছেন।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কমনওয়েলথ মহাসচিব শর্মা আজ সকালে এখানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎকালে এই প্রশংসা করেন।
বৈঠকে তারা বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিশেষ করে বাংলাদেশে কমনওয়েলথ সহযোগিতায় পরিচালিত প্রকল্পগুলোর অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা করেন।
বৈঠকর মূল উদ্দেশ্য ছিলো এ বছরে অনুষ্ঠিতব্য কমনওয়েলথ সরকার প্রধানদের আসন্ন সম্মেলন সম্পর্কে বাংলাদেশ নেতৃত্বকে অবহিত করা।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কমনওয়েলথ একটি আন্তর্জাতিক সংস্থা। সংস্থাটি অভিন্ন ও মৌলিক কমনওয়েলথ মূল্যবোধ ও নীতির প্রতিপালন ও প্রচারে ব্যাপক বৈচিত্র্য নিয়ে সকল মহাদেশ কাজ করে যাচ্ছে।
তিনি বলেন, কমনওয়েলথ সিএইচওজিএম-২০১৫-এর জন্য একটি প্রাসঙ্গিক ও সময়োপযোগী ধারণা। কমনওয়েলথ আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে বিশেষ করে আন্তর্জাতিক ইস্যুতে এবং কমনওয়েলথভুক্ত দেশের জনগণের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের জন্য উল্লেখযোগ্য ও গঠনমূলক ভূমিকা রাখতে পারে।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ বাণিজ্য, বাজার প্রবেশাধিকার, বিনিয়োগ, দারিদ্র্য বিমোচন, টেকসই উন্নয়ন, নারীর ক্ষমতায়ন, জলবায়ু পরিবর্তন, ব্লু-ইকোনমি এবং অন্যান্য ক্ষেত্রের মতো অগ্রাধিকার ক্ষেত্রগুলোতে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে স্বল্পোন্নত ও ক্ষুদ্র দ্বীপ এবং উন্নয়নশীল দেশের স্বার্থ রক্ষায় কথা বলতে সিএইচওজিএম-এর ভূমিকা দেখতে চায়।
তিনি বর্তমান মহাসচিবের দায়িত্ব পালনকালে কমনওয়েলথের এজেন্ডা ও স্বার্থকে এগিয়ে যাবার ক্ষেত্রে তার প্রচেষ্টার প্রশংসা করেন।
কমনওয়েলথ মহাসচিবের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল বাংলাদেশে তিনদিনের সরকারি সফরে গতকাল সন্ধ্যায় ঢাকায় পৌঁছেন।

শুভ সমরাটজাতীয়
ঢাকায় সফররত কমনওয়েলথের মহাসচিব কমলেশ শর্মা কমনওয়েলথ এবং সংস্থার বিভিন্ন সংগঠনে বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার প্রশংসা করেছেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কমনওয়েলথ মহাসচিব শর্মা আজ সকালে এখানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎকালে এই প্রশংসা করেন। বৈঠকে তারা বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিশেষ করে বাংলাদেশে কমনওয়েলথ সহযোগিতায়...