1439988587
রাজধানীর ওয়ারীতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে আহত যুবলীগ নেতা আবদুল মান্নান মারা গেছেন। বুধবার সকাল সাড়ে ৭টায় রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ওয়ারি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রমেশ চন্দ্র পাল তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মান্নান যুবলীগের ঢাকা মহানগরের ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। মিটফোর্ডে তিনি ওষুধের ব্যবসা করতেন।

মঙ্গলবার রাতে নিজ বাসার সামনে দুর্বৃত্তদের গুলিতে আব্দুল মান্নান আহত হন। গুলি তার মাথায় ও পেটে লাগে। গুরুতর অবস্থায় তাকে রাত সাড়ে ১০ টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থার অবনতি হলে সেখান থেকে অ্যাপোলো হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

আহত আব্দুল মান্নানের স্ত্রী নুসরাত জাহান সাথী ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, হাটখোলা রোডের ২১/১, নকশী রূপায়ণ অ্যাপার্টমেন্টের তৃতীয় তলার ফ্ল্যাটে তারা বসবাস করেন। তার স্বামী মিটফোর্ড এলাকার ওষুধ ব্যবসায়ী। তার স্বামী ৩১ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক। মঙ্গলবার রাত ১০ টার দিকে তার স্বামী দোকান বন্ধ করে রিকশা যোগে বাসার উদ্দেশে রওনা দেন। রিকশায় তার সঙ্গে আলামিন নামে এক সহকর্মী ছিলেন। সাড়ে ১০ টার দিকে তিনি বাসা থেকে গুলির শব্দ শুনতে পান। বাসার সামনে ছুটে গিয়ে দেখতে পান তার স্বামীকে কে বা কারা গুলি করেছে।

তিনি প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে আরো জানান, একটি মোটরসাইকেলে করে তিন যুবক এসে তার স্বামীকে খুব কাছ থেকে গুলি করে পালিয়ে যায়।

হীরা পান্নাশেষের পাতা
রাজধানীর ওয়ারীতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে আহত যুবলীগ নেতা আবদুল মান্নান মারা গেছেন। বুধবার সকাল সাড়ে ৭টায় রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ওয়ারি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রমেশ চন্দ্র পাল তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মান্নান যুবলীগের ঢাকা মহানগরের ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। মিটফোর্ডে তিনি ওষুধের...