BALLO BIBAHO
পরশুরাম সংবাদদাতা :
ফেনীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের (ইউএনও) হস্তক্ষেপে এক কিশোরীর বাল্যবিবাহ বন্ধ হয়েছে। এ ঘটনায় বরসহ ৩ জনের ভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড এবং কনের বাবাসহ দুই জনের জরিমানা করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে ফেনী সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক পিকেএম এনামুল করিম বাল্যবিবাহ বন্ধ ও তাদের জেল জরিমানার আদেশ প্রদান করেন।
ভ্রাম্যমাণ আদালত ও এলাকাবাসীর তথ্যমতে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম এলাকার বাসিন্দা হয়েও বাল্যবিবাহ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় কনের নানার বাড়ি ফেনী সদর উপজেলার আলকদিয়া গ্রামে।
স্থানীয়রা ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানায়, কনে স্থানীয় একটি বিদ্যালয় থেকে চলতি বছর মাত্র এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। এখনো ফল প্রত্যাশী। বর একজন প্রবাসী, সে চৌদ্দগ্রামের সাতঘরিয়া গ্রামের নুরুজ্জমানের ছেলে।
স্থানীয় সূত্রের মাধ্যমে বাল্যবিবাহের বিষয়টি জানতে পেরে বুধবার বিকেলে ফেনী সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বর ও কনে পক্ষকে তাঁর কার্যালয়ে ডেকে পাঠান। তাঁরাও নির্বাহী অফিসারের ডাকে সাড়া দিয়ে তাঁর কার্যালয়ে হাজির হন। তিনি উভয় পক্ষের বক্তব্য শোনার পর সেখানে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে বর শরিয়ত উল্লাহ মানিককে (৩৩) এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং এক হাজার টাকা জরিমানা, বরের ভাই শহিদ উল্লাহ ওরফে খোকনকে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও এক হাজার টাকা জরিমানা, বরের মামা আবু আহম্মদকে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং কনের বাবা মোঃ ইউছুফ হারুনকে এক হাজার টাকা জরিমানা এবং তিরস্কার করা হয়।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2016/03/BALLO-BIBAHO.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2016/03/BALLO-BIBAHO-300x300.jpgশিল্পী দত্তস্বদেশের খবর
পরশুরাম সংবাদদাতা : ফেনীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের (ইউএনও) হস্তক্ষেপে এক কিশোরীর বাল্যবিবাহ বন্ধ হয়েছে। এ ঘটনায় বরসহ ৩ জনের ভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড এবং কনের বাবাসহ দুই জনের জরিমানা করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে ফেনী সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক পিকেএম এনামুল করিম বাল্যবিবাহ বন্ধ ও তাদের জেল জরিমানার...