1437065603

মেঘালয়ের আকাশ ছোঁয়া পাহাড় থেকে সফেদ ঝর্ণাধারা সবুজাভ বৃক্ষলতাগুলোকে অবিরত ভিজিয়ে দিয়ে নেচে নেচে নামছে-এর যেন শেষ নেই। শীতল ঝর্ণার পানি পাহাড়ের চুড়া বেয়ে কঠিন শিলার উপর সশব্দে পড়ছে আর অসংখ্য ছড়া মাড়িয়ে সর্পিল গতিতে পিয়াইন নদীতে গিয়ে মিলিত হচ্ছে। পিয়াইনের তলদেশের বড় বড় পাথরগুলো স্বচ্ছ পানির মধ্য দিয়ে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে। আষাঢ়-শ্রাবণের বৃষ্টি ভেজা স্বচ্ছতায় কখনও সাদা মেঘ পাহাড়ের সবুজ ঢেকে দেয়। আবার কখনো ঝমঝম বৃষ্টিতে ভিজিয়ে দেয় পাহাড়ি জনপদ। মৌসুমী হাওয়ায় বিশাল হাওরের পানিতে ঝিরিঝিরি বাতাস বয়ে যায়। খরস্রোতা নদী ধেয়ে চলছে ভাটির দিকে। বৃষ্টির ফোটায় চা-বাগানের পাতাগুলো দুষ্টামীতে মেতে ওঠে বার বার। এমন সব নয়ন মনোহর দৃশ্যই এখন সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জের বিভিন্ন স্থানজুড়ে বিরাজ করছে। আর তা দেখতে মুখিয়ে আছেন দেশ বিদেশের পর্যটকরা। এবার ঈদে তাই অসংখ্য প্রবাসী এসেছেন সিলেটে। যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশ থেকে তারা এসেছেন নাড়ীর টানে। এক সাথে ঈদের আনন্দ ভাগ করে নেবেন বলে। তারা ঘুরে বেড়াবেন সিলেটের প্রকৃতির কোলে। এ্কই সাথে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসছেন পর্যটকরা। যদিও এবার ঈদের ছুটি খুব দীর্ঘ নয়। তবুও এটুকু সময়ের মধ্যেই তারা সিলেটের বন, পাহাড়, ঝর্ণা, হাওর ও চা-বাগান দেখতে আসছেন। অনেকে এরই মধ্যে সিলেটের হোটেল-মেটেলগুলোতে অগ্রিম বুকিং দিয়ে রেখেছেন।

শুভ সমরাটপ্রথম পাতা
মেঘালয়ের আকাশ ছোঁয়া পাহাড় থেকে সফেদ ঝর্ণাধারা সবুজাভ বৃক্ষলতাগুলোকে অবিরত ভিজিয়ে দিয়ে নেচে নেচে নামছে-এর যেন শেষ নেই। শীতল ঝর্ণার পানি পাহাড়ের চুড়া বেয়ে কঠিন শিলার উপর সশব্দে পড়ছে আর অসংখ্য ছড়া মাড়িয়ে সর্পিল গতিতে পিয়াইন নদীতে গিয়ে মিলিত হচ্ছে। পিয়াইনের তলদেশের বড় বড় পাথরগুলো স্বচ্ছ পানির মধ্য...