planets_97172
পৃথিবী থেকে মাত্র ২১ আলোকবর্ষ দূরে একটি গ্রহজগতের (প্ল্যানাটরি সিস্টেম) সন্ধান পেয়েছেন জ্যোতির্বিদরা। আর সেখানে রয়েছে তিনটি সুপার-পৃথিবী! সব ক’টির সঙ্গেই বেশ কিছু মিল আছে আমাদের পৃথিবীর। তবে সৌরজগতের বাইরের ওই গ্রহগুলোতে আপাতত প্রাণের অস্তিত্ব নেই। ফ্রান্সভিত্তিক ‘অ্যাস্ট্রোনমি অ্যান্ড অ্যাস্ট্রোফিজিকস’ সাময়িকীর এক প্রতিবেদনে একদল গবেষক এ তথ্য জানিয়েছেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এই তিন সুপার-পৃথিবী একটি ছোট উজ্জ্বল নক্ষত্রকে কেন্দ্র করে ঘুরছে। এর বাইরেও সেখানে বিশালাকৃতির আরেকটি গ্রহ আছে। আর ‘এম’ আকৃতির এ গ্রহজগৎটি বিষুবরেখার উত্তর গোলার্ধে ক্যাসিওপেইয়া নক্ষত্রপুঞ্জের অন্তরালে রয়েছে। পৃথিবী থেকে এর দূরত্ব ২১ আলোকবর্ষ।

এ চারটি গ্রহ যে নক্ষত্রকে কেন্দ্র করে ঘুরছে, গবেষকরা এর নাম দিয়েছেন এইচডি২১৯১৩৪। সুপার-পৃথিবীগুলোর ভর পৃথিবীর চেয়ে বেশি। তবে সৌরজগতের নেপচুন, শনি কিংবা বৃহস্পতি গ্রহের চেয়ে কম। সুপার-পৃথিবীগুলো খুব সম্ভব গ্যাস বা পাথরে তৈরি।

কক্ষপথের সবচেয়ে কাছে অবস্থিত প্রথম সুপার-পৃথিবীর নাম দেওয়া হয়েছে এইচডি২১৯১৩৪বি। নিজ অক্ষে ঘুরে আসতে এর সময় লাগে তিন দিন। দ্বিতীয়টির লাগে ৬ দশমিক ৮ দিন। আর তৃতীয়টির লাগে ৪৭ দিন। টেলিস্কোপে দেখা গেছে, এইচডি২১৯১৩৪বির গঠন-প্রক্রিয়া এখনো শেষ হয়নি। এর ভর পৃথিবীর ৪ দশমিক ৫ গুণ বেশি। আর আকৃতিতে পৃথিবীর চেয়ে এটি ১ দশমিক ৬ গুণ বড়। তাপমাত্রা ৭০০ ডিগ্রি।

গবেষণায় ইউনিভার্সিটি অব জেনেভার জ্যোতির্বিদরাও অংশ নেন। সম্প্রতি এই বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘এইচডি২১৯১৩৪বির ঘনত্ব পৃথিবীর মতোই।’ গবেষক স্টিফেন উড্রি বলেন, ‘এই গ্রহটির উপরিভাগ ঘন তরলে ভরা। সম্ভবত এগুলো আগ্নেয়গিরির লাভা। তবে এগুলো প্রাণের জন্য উপযুক্ত নয়।’ প্রাণের জন্য উপযুক্ত না হলেও বিজ্ঞানীদের আগ্রহের জায়গা হলো এর চলমান বিবর্তন প্রক্রিয়ায়। কারণ পরবর্তী সময় মহাবিশ্ব নিয়ে গবেষণায় এ বিবর্তন প্রক্রিয়াটি অবদান রাখবে বলে তাদের বিশ্বাস।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার বিজ্ঞানীরা আমাদের সৌরজগতের বাইরে পৃথিবীসদৃশ আরেকটি গ্রহের সন্ধান পাওয়ার কথা জানান। সেই গ্রহের নাম দেওয়া হয় ফোরফিফটিটুবি।

তুনতুন হাসানঅন্যান্য
পৃথিবী থেকে মাত্র ২১ আলোকবর্ষ দূরে একটি গ্রহজগতের (প্ল্যানাটরি সিস্টেম) সন্ধান পেয়েছেন জ্যোতির্বিদরা। আর সেখানে রয়েছে তিনটি সুপার-পৃথিবী! সব ক'টির সঙ্গেই বেশ কিছু মিল আছে আমাদের পৃথিবীর। তবে সৌরজগতের বাইরের ওই গ্রহগুলোতে আপাতত প্রাণের অস্তিত্ব নেই। ফ্রান্সভিত্তিক 'অ্যাস্ট্রোনমি অ্যান্ড অ্যাস্ট্রোফিজিকস' সাময়িকীর এক প্রতিবেদনে একদল গবেষক এ তথ্য জানিয়েছেন। প্রতিবেদনে বলা...