আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।
সৌদি আরবের যুবরাজ এবং দেশটির ‘বৈপ্লবিক সংস্কারক’ মুহাম্মদ বিন সালমান বলেছেন, ‘সৌদি আরব পরিচালিত হচ্ছে ইসলামের একটি অতিরক্ষণশীল ব্যাখ্যা দিয়ে। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, এই অতিরক্ষণশীলতার কারণে তিনি এবং তাঁর প্রজন্ম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, অমুসলিমরা উদ্বিগ্ন থেকেছে, নারীরা বৈষম্যের শিকার হয়েছে, বিনোদনহীনতায় সামাজিক জীবন সংকুচিত হয়েছে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।
তিনি বলেন, শুধু মৃত্যু ছাড়া আর কোনো কিছুই তাঁকে সৌদি আরব শাসন করা থেকে বিরত রাখতে পারবে না।

সম্প্রতি কানাডিয়ান ব্রডকাস্টিং করপোরেশনকে (সিবিসি) দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে যুবরাজ মুহাম্মদ এসব মন্তব্য করেন। যুক্তরাষ্ট্র সফরকে সামনে রেখে গত রবিবার ৬০ মিনিটের এই সাক্ষাৎকারটি সম্প্রচার করে সিবিসি।

গতকাল সোমবার ওয়াশিংটনে পৌঁছার কথা যুবরাজ। আজ মঙ্গলবার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তাঁর সাক্ষাতের কর্মসূচি রয়েছে। মূলত সৌদি আরবে নেওয়া তাঁর সংস্কার কর্মসূচিগুলোতে তুলে ধরে বিনিয়োগ আকর্ষণ করাই তাঁর এই সফরের লক্ষ্য।

ইসলাম প্রসঙ্গ : সাক্ষাৎকারে মুহাম্মদ বিন সালমান স্বীকার করেন, ‘আমরা ক্ষতিগ্রস্ত, বিশেষ করে আমার প্রজন্ম এই কারণে দুর্ভোগের শিকার হয়েছে।’ তিনি স্মরণ করিয়ে দেন, ১৯৭৯ সালের ঘটনার (ইরানি বিপ্লব) মধ্য দিয়ে সৌদি রাজতন্ত্রে রক্ষণশীলতার বিস্তার ঘটে।

নারী অধিকার প্রসঙ্গ : নারীরা পুরষের সমান কি না—এই প্রশ্নের জবাবে মুহাম্মদ বলেন, ‘অবশ্যই। আমরা সবাই মানবজাতি। কোনো পার্থক্য নেই।’ যুবরাজ অবশ্য এরই মধ্যে নারীদের পোশাকের বাধা-নিষেধ শিথিল করেছেন, কর্মক্ষেত্রে নারীর উপস্থিতি বৃদ্ধি ও সমান মজুরি প্রদানে কাজ করছেন।

অন্য যুবরাজদের আটক প্রসঙ্গ : মুহাম্মদ ক্রাউন প্রিন্স হওয়ার পর ৩৮০ জনের বেশি যুবরাজ, ব্যবসায়ী, সাবেক মন্ত্রীকে দুর্নীতির অভিযোগে বন্দি করেন। এ ঘটনাকে ক্ষমতা নিরঙ্কুশ করার চেষ্টা মনে করেন অনেকে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এর প্রয়োজন ছিল। এই বিচার প্রকাশ্য আইন অনুযায়ী করা হচ্ছে।’

নিজের সম্পদ প্রসঙ্গে : সৌদি যুবরাজ দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান চালালেও তাঁর ব্যক্তিগত খরচ ও বিলাসিতা নিয়ে সমালোচনা রয়েছে। এর জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা আমার ব্যক্তিগত খরচ। আমি ধনী মানুষ। গরিব মানুষ নই। আমি গান্ধী কিংবা ম্যান্ডেলাও নই।’

বাদশাহ হওয়া প্রসঙ্গে : তরুণ বয়সে সৌদির বাদশাহ হলে তিনি ৫০ বছরও সৌদি শাসন করতে পারবেন। এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, কে কত দিন বাঁচবেন, তা আল্লাহ জানেন। সব কিছু যদি স্বাভাবিকভাবে ঘটে, তাহলে সৌদি শাসন করা থেকে শুধু মৃত্যুই আমাকে দূরে রাখতে পারে। সূত্র : আলজাজিরা, টাইমস অব ইন্ডিয়া।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/03/519.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/03/519-300x254.jpgবাহাদুর বেপারীআন্তর্জাতিক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক । সৌদি আরবের যুবরাজ এবং দেশটির ‘বৈপ্লবিক সংস্কারক’ মুহাম্মদ বিন সালমান বলেছেন, ‘সৌদি আরব পরিচালিত হচ্ছে ইসলামের একটি অতিরক্ষণশীল ব্যাখ্যা দিয়ে। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, এই অতিরক্ষণশীলতার কারণে তিনি এবং তাঁর প্রজন্ম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, অমুসলিমরা উদ্বিগ্ন থেকেছে, নারীরা বৈষম্যের শিকার হয়েছে, বিনোদনহীনতায় সামাজিক জীবন সংকুচিত হয়েছে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার...