1438490759
ঘূর্ণিঝড় কোমেন ও মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন স্থানে গত কয়েকদিন ধরে চলছে অবিরাম বৃষ্টিপাত। টানা বৃষ্টিতে জনজীবন থমকে যাওয়ার উপক্রম হচ্ছে। কোমেনের প্রভাবে যে বৃষ্টি হচ্ছে তা আজ থেকে কমতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। তবে মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে বর্ষা মৌসুমের স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকবে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, ঘূর্ণিঝড় কোমেন এখনো বাংলাদেশের মূল ভূখণ্ডে অবস্থান করছে এবং এটি ‘ভূ-নিম্নচাপ’ আকারে এখন নোয়াখালী থেকে ক্রমে খুলনার দিকে অগ্রসর হচ্ছে। মৌসুমি বায়ুর সাথে এই ভূ-নিম্নচাপ মিলে যাওয়াতেই বাংলাদেশের উপকূলীয় ও মধ্যাঞ্চলীয় জেলাগুলোর মানুষ দেখতে পাচ্ছে অবিরাম বৃষ্টিপাত।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক মোঃ শাহ আলম জানান, ঘূর্ণিঝড় কোমেনের প্রভাবে যে অবিরাম বর্ষণ হচ্ছে তা আজ হয়তো কমে আসবে এবং আগামী দু-একদিনে একেবারেই কমে যাবে। তবে বৃষ্টিপাত এখনই শেষ হয়ে যাবে না। মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে বর্ষা মৌসুমের যে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হয় তা অব্যাহত থাকবে।

এদিকে দেশটির মধ্যাঞ্চল এবং দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে অতি-বর্ষণের কারণে কোথাও কোথাও জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। আলম বলছেন, এই জলাবদ্ধতা যদি আরো চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে কেটে না যায় তাহলে ফসলের ক্ষতি হতে পারে।

তবে দেশটির উত্তরাঞ্চলে দেখা যাচ্ছে উল্টো চিত্র। সেখানে বৃষ্টিপাত এ বছর খুবই কম হচ্ছে এবং কর্মকর্তারা বলছেন, ওই এলাকায় অনাবৃষ্টির কারণে ফসলের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। তথ্যসূত্র: বিবিসি।

হীরা পান্নাঅন্যান্য
ঘূর্ণিঝড় কোমেন ও মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন স্থানে গত কয়েকদিন ধরে চলছে অবিরাম বৃষ্টিপাত। টানা বৃষ্টিতে জনজীবন থমকে যাওয়ার উপক্রম হচ্ছে। কোমেনের প্রভাবে যে বৃষ্টি হচ্ছে তা আজ থেকে কমতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। তবে মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে বর্ষা মৌসুমের স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকবে। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, ঘূর্ণিঝড়...