marriage_97948
প্রত্যেক মেয়ের জীবনের স্বপ্ন থাকে তার বিয়ে হবে বেশ ধুমধাম করে। বিয়ের পর স্বামীর সঙ্গে যাবে নতুন ঘরে। কিন্তু স্বামীর ঘরে যাওয়ার বদলে বিএ পরীক্ষা দিতে পরীক্ষার কেন্দ্রে গিয়ে সেই ধারণাকে পাল্টে দিয়েছেন ভারতের রাজস্থানের সন্তোষ নামে এক মেয়ে। সোমবার রাতে বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার পরদিন সকালে স্বামীর সঙ্গে শ্বশুর বাড়ি যাওয়ার কথা ছিলো তার। কিন্তু ওই দিনই তার বিএ ফাইনাল পরীক্ষা ছিল। সন্তোষের এই দাবির বিরোধিতা করে সন্তোষের বাবা-মাসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন। তবে মনের জোর থাকলে সবই যে সম্ভব হয় তাই দেখিয়ে দিল সে। তাই সবাইকে রাজি করাতেও সমর্থ হন সন্তোষ। ফলে বরযাত্রীদের অপেক্ষা করতে হলো আরো তিন ঘণ্টা। এই তিন ঘন্টায় পরীক্ষা শেষ করে বাড়ি ফিরে শ্বশুর বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হন নববধূ।

এমন সিদ্ধান্তের বিষয়ে সন্তোষ জানান, পরীক্ষায় অংশ না নিলে তার সারা বছরের পরিশ্রম বৃথা যেত। জীবন থেকে একটি বছর যাতে নষ্ট না হয় সেজন্য তিনি সবাইকে রাজি করিয়ে পরীক্ষা দিতে পেরেছেন। লেখাপড়া করে জীবনে বড় হতে চান তিনি। সূত্র : ডেইলি ভাস্কর

হীরা পান্নাঅন্যান্য
প্রত্যেক মেয়ের জীবনের স্বপ্ন থাকে তার বিয়ে হবে বেশ ধুমধাম করে। বিয়ের পর স্বামীর সঙ্গে যাবে নতুন ঘরে। কিন্তু স্বামীর ঘরে যাওয়ার বদলে বিএ পরীক্ষা দিতে পরীক্ষার কেন্দ্রে গিয়ে সেই ধারণাকে পাল্টে দিয়েছেন ভারতের রাজস্থানের সন্তোষ নামে এক মেয়ে। সোমবার রাতে বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার পরদিন সকালে স্বামীর সঙ্গে শ্বশুর...