UCHCHA ADALOT
বিএনপি-জামায়াতের জোট সরকারের আমলে ২০০২ সালে সন্ত্রাস দমনে যৌথ বাহিনীর নামে পরিচালিত অপারশেন ক্লিনহার্ট কার্যক্রমকে দায়মুক্তি দিয়ে জাতীয় সংসদে পাস করা আইনকে অবৈধ ঘোষণা করেছে হাইকোর্ট। একই সঙ্গে সংবিধানের কয়েকটি বিধানের সাথে সাংঘর্ষিক হওয়ায় তা বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। এক রিটা আবেদনের রুলের চূড়ান্ত শুনানি নিয়ে বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মোহম্মদ আশরাফুল কামালের ডিভিশন বেঞ্চ রবিবার এই রায় দেন।

রায়ে বলা হয়, সংবিধানই দেশের সর্বোচ্চ আইন। সংসদ সাবর্েভৗম কিন্তু সংবিধানের মৌলিক কাঠামোর সঙ্গে অসামঞ্জস্য কোনো আইন করতে পারে না।

রায়ে আরো বলা হয়, যৌথ বাহিনী বা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হেফাজতে মৃত্যু আইনকে লঙ্ঘন করে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার লক্ষ্যে পরিচালিত অভিযানের নামে যৌথবাহিনী আইন নিজের হাতে তুলে নিতে পারে না। কারণ কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়। সবাইকে আইন মেনে চলতে হবে।

২০০২ সালের ১৬ অক্টোবর থেকে ২০০৩ সালের ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত অপারেশন ক্লিনহার্ট পরিচালিত হয়। ২০০৩ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি জাতীয় সংসদে এই সংক্রান্ত দায়মুক্ত আইন পাস করে।

২০১২ সালের জুন মাসে দায়মুক্তি আইনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী জেড আই খান পান্না । ঐ বছরের ২৯ জুলাই হাইকোর্ট দায়মুক্তি কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করে। ঐ রুলের শুনানি আজ হাইকোর্ট এই রায় দেয়।

ওয়াজ কুরুনীআইন-আদালত
বিএনপি-জামায়াতের জোট সরকারের আমলে ২০০২ সালে সন্ত্রাস দমনে যৌথ বাহিনীর নামে পরিচালিত অপারশেন ক্লিনহার্ট কার্যক্রমকে দায়মুক্তি দিয়ে জাতীয় সংসদে পাস করা আইনকে অবৈধ ঘোষণা করেছে হাইকোর্ট। একই সঙ্গে সংবিধানের কয়েকটি বিধানের সাথে সাংঘর্ষিক হওয়ায় তা বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। এক রিটা আবেদনের রুলের চূড়ান্ত শুনানি নিয়ে বিচারপতি মইনুল...